June 23, 2024, 4:24 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
আগে গুলি ছুড়েছিল বিএসএফ: বিজিবি

আগে গুলি ছুড়েছিল বিএসএফ: বিজিবি

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে চারঘাট উপজেলায় বড়াল নদীতে পদ্মার মোহনায় দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় ভারতীয় বাহিনী বিএসএফ আগে গুলি ছুড়েছিল বলে জানিয়েছে বিজিবি। সংস্থাটি জানিয়েছে, বিএসএফের গুলির পরিপ্রেক্ষিতে আত্মরক্ষার্থে গুলি করে বিজিবি। পরে এ ঘটনায় দুই বাহিনীর মধ্যে পতাকা বৈঠকে জানা গেছে, গোলাগুলিতে বিএসএফের এক সদস্য নিহত ও এক সদস্য আহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলামের সই করা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ১০টা ৪০ মিনিটে রাজশাহী ব্যাটালিয়নের অন্তর্গত চারঘাট বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের শূন্য লাইন থেকে পদ্মা নদীর পাড়ে আনুমানিক ৩৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারত থেকে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশকারী তিন জন জেলেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে দেখা যায়। এসময় বিজিবির চারঘাট বিওপি’র টহল দল মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান তদারকির জন্য উপজেলা মৎস্য অধিদফতরের ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট আবু রায়হান ও আরও দু’জন সহকারীসহ ঘটনাস্থলে যান। সেখানে তারা একজন জেলেকে অবৈধ কারেন্ট জালসহ আটক করেন, বাকি দু’জন জেলে নৌকা নিয়ে ভারতে পালিয়ে যানবাংলাদেশ সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করা বিএসএফ সদস্যরা, ডানে চারঘাট উপজেলার মৎস্য অধিদফতরের কর্মকর্তা
বিজিবি জানিয়েছে, পরে বিএসএফের ১১৭ ব্যাটালিয়নের কাগমারী বিওপি থেকে স্পিডবোটে করে চার বিএসএফ সদস্য রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বালুঘাট এলাকার শাহারিয়া ঘাটের বড়াল নদীর মুখে আনুমানিক ৬৫০ গজ বাংলাদেশের ভেতরে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করলে চারঘাট বিওপির টহল দল তাদের বাধা দেয়। বিএসএফের চার সদস্যের মধ্যে একজন বাহিনীর পোশাক পরিহিত থাকরেও বাকিদের পরনে ছিল হাফ প্যান্ট ও গেঞ্জি। তাদের কাছে অস্ত্রও ছিল।প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে আরও বলা হয়, বিএসএফ সদস্যরা ওই জেলেকে জোর করে ফিরিয়ে নিতে চাইলে তাদের পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে নিয়মমাফিকভাবে ফেরত দেওয়া হবে বলে জানায় বিজিবির টহল দল। বিএসএফ সদস্যদের বিজিবি আরও জানায়, আপনারাও অবৈধভাবে বাংলাদেশে এসেছেন। তাই আপনাদেরও নিয়ম অনুযায়ী পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তখন বিএসএফ সদস্যরা আতঙ্কিত হয়ে জোরপূর্বক আটক জেলেকে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে চাইলে বিজিবি সদস্যরা তাদের বাধা দেন। এসময় বিএসএফ সদস্যরা উত্তেজিত হয়ে গুলি চালান এবং গুলি করতে করতে স্পিডবোটে করে ভারতে চলে যেতে থাকে। তখন বিজিবি টহল দল আত্মরক্ষার্থে গুলি করে।
বিজিবি জানিয়েছে, এ বিষয়ে রাজশাহী ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক ও কমান্ড্যান্ট ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। পতাকা বৈঠকে জানা যায়, ওই ঘটনায় বিএসএফের এক সদস্য নিহত ও এক সদস্য আহত হয়েছেন। বৈঠকে দুই পক্ষই নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে একমত হয়েছে। এছাড়াও এ বিষয়ে আরও আলোচনার জন্য আবারও পতাকা বৈঠক করার ব্যাপারে উভয়পক্ষ একমত হয়েছে।
এদিকে, সারাবাংলার রাজশাহী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ১ বিজিবি, রাজশাহী ব্যাটালিয়নের পক্ষ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতেও এ ঘটনা তুলে ধরা হয়েছে। এই বিজ্ঞপ্তিতেও বলা হয়েছে, মা ইলিশ সংরক্ষণ কর্মসূচির আওতায় মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পদ্মা নদীতে অভিযান চালানোর সময় বাংলাদেশ সীমায় ভারতীয় তিন জেলেকে মাছ ধরতে দেখা যায়। তাদের আটকের চেষ্টা করলে দু’জন পালিয়ে যান, আটক করা হয় একজনকে। এর কিছুক্ষণ পর ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের কাগমারী ক্যাম্প থেকে চার সদস্যের একটি টহল দল স্পিডবোটে করে অনুমতি ছাড়াই শূন্য লাইন অতিক্রম করে বাংলাদেশের জলসীমায় ঢুকে পড়ে। তারা ভারতীয় জেলেকে ছেড়ে দিতে বলেন। পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা জানালে তারা ভারতীয় নাগরিককে বিজিবির কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এতে বিজিবি সদস্যরা বাধা দিলে বিএসএফ সদস্যরা বিজিবি’র ওপর আনুমানিক ৬/৮ রাউন্ড ফায়ার করে। আত্মরক্ষার জন্য বিজিবি টহল দল পাল্টা ফাঁকা ফায়ার করলে বিএসএফ সদস্যরা ফায়ার করতে করতে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে চলে যায়।
নিহত বিএসএফ সদস্য বিজয়ভান সিংহ (বাঁয়ে) ও আটক ভারতীয় নাগরিক প্রনব মন্ডলের পরিচয়পত্র (ছবি- বিজিবি)
রাজশাহী ব্যাটালিয়নের (১ বিজিবি) অধিনায়ক ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদের সেই করা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আটক ভারতীয় নাগরিকের নাম প্রনব মন্ডল, পিতা- বসন্ত মন্ডল, গ্রাম- ছিড়াচর, পোস্ট- সাহেবনগর, থানা- জলঙ্গী, জেলা- মুর্শিদাবাদ। টহল দল ভারতীয় জেলের কাছ থেকে চার কেজি কারেন্ট জাল উদ্ধার করে। আটক ভারতীয় নাগরিককে চারঘাট থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
রাজশাহী বিজিবিও জানিয়েছে, এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিকেল পৌনে ৫টা থেকে একঘণ্টারও বেশি সময় অধিনায়ক রাজশাহী ব্যাটালিয়ন (১ বিজিবি) ও কমান্ড্যান্ট ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের মধ্যে সীমান্ত পিলার ৭৫/৩-এস থেকে আনুমানিক এক কিলোমিটার বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পদ্মা নদীর চর শাহরিয়ার বাঁধ নামক স্থানে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হওয়া এই বৈঠকে দুই পক্ষই বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে একমত হয়। পাশাপাশি এ ঘটনা নিয়ে আরও আলোচনার জন্য খুব শিগগিরই পতাকা বৈঠক আয়োজনে সম্মত হয় উভয় পক্ষ।
এদিকে, হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভিসহ ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, জিরো পয়েন্টে বিজিবি’র গুলিতে নিহত বিএসএফ সদস্যদের নাম বিজয়ভান সিংহ, তিনি হেড কনস্টেবল ছিলেন। রাজবীর সিং নামে আরও এক বিএসএফ সদস্য আহত হয়েছেন।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com