February 29, 2024, 6:38 pm

আলিপুরে আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ঝাড় থেকে বাঁশ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

আলিপুরে আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ঝাড় থেকে বাঁশ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

আদালতের নির্দেশ অমান্য করে পরিবহন শ্রমিকলীগ নেতার ঝাড় থেকে বাঁশ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার বেলা ১১টায় সদর উপজেলার আলিপুর মাঝেরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা এ ঘটনা ঘটে।ভূক্তভোগী নুরুল আলম জানান, একই এলাকা মৃত গোলাম রব্বানীর পুত্র নুরুল আলমের পৈত্রিক সম্পত্তি ১ একর ৩৮ শতাংশ জমি। যার দাগ নং ২০০১। উক্ত জমি ঘরজামাই আনছার জাল দলিলের মাধ্যমে মৃত সুলতান মোন্ডলের পুত্র রহমতের স্ত্রীর কাছে ৪৪ শতক জমি বিক্রি করে দেয়। ওই রহমতের বউ জুম্মান মাস্টারের ছেলে সবুরের কাছে বিক্রি করে দেয়। আমি আওয়ামীলীগ পরিবারের সদস্য ও জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি।সুলতান মোন্ডলের পুত্র রহমত ও জাল দলিলসৃষ্টিকারী (মুহুরী) রহিলের নিকট জমির সকল কাগজপত্র ও দায়দায়িত্ব থাকে। তারা আমার ভাগের সম্পত্তি বুঝিয়ে দেয় না। এবং জমির আমার ভাগও বুঝিয়ে দেয় না। যে কারণে আমি আদালতে ১৯.৪.১৯ তারিখে দেওয়ানী মামলা করি। আনুমানিক আমরা ২৫ বিঘা সম্পত্তির মালিক। তার মধ্যে ৪৬ শতক জমিতে বাশ বাগান এবং কবরস্থান রয়েছে। আমার সম্পত্তির ভাগ বুঝিয়ে না দিয়ে রহমত ও আনছারের নেতৃত্বে সিদ্দিকুর ও তার ছেলে কাজল, রহিলের ছেলে হুসাইন, ইনতাজ গাজীর ছেলে ইউসুফ, রাস্তার পাশে নয়েনের আলিম, রহমতের ছেলে ওলি ও ওলির ছেলে আরাফাত সহ সাতক্ষীরা থেকে ভাড়াকরা লাঠিয়াল বাহিনীর মোট ২০/৩০ জন লোক জন নিয়ে কবরস্থান থেকে শতাধিক বাঁশ কেটে নিয়ে যায়। তারা আমাকে যে কোন সময় প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।এছাড়া আমার দাদার ক্রয়কৃত (এসএ খতিয়ান নং ৩১১) সম্পত্তি ভিটে বাড়ী ও পুকুর ৭০ শতক জমিতে আমি বসবাস করি। সেই জমির কাগজপত্রও তাদের কাছে। যার দাগ নং- ৩৯৬২,৩৯৬৩,৩৯৬৪,৩৯৬৫। উক্ত জালজালিয়াতির মামলা সিআইডির তদন্তাধিন। যার সিআর নং ৫৬৭/১৯।


Comments are closed.

© সাতক্ষীরা প্রবাহ
Design & Developed BY CodesHost Limited