February 28, 2024, 1:14 pm

কালিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাকে হাতকড়া পরানোকে কেন্দ্র করে ইউএনও’র সাথে বিরোধ

কালিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাকে হাতকড়া পরানোকে কেন্দ্র করে ইউএনও’র সাথে বিরোধ

কালিগঞ্জ প্রতিনিধিঃভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বিডিআর এর অবসরপ্রাপ্ত নায়েক নুর ইসলামকে গ্রেপ্তারের আদেশ প্রদান ও হাতকড়া পরানোকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট বিরোধ নিরসনে উদ্যোগ নিয়েছেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার বিকেলে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স ভবনে মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের উপস্থিতিতে তীব্র উত্তেজনার মধ্য দিয়ে সমঝোতা ছাড়াই চলে যান জেলা প্রশাসক। সরেজমিন জানা যায়, গত ২ সেপ্টেম্বর বেলা ১২টার দিকে বসতভিটার পানি অপসারণকে কেন্দ্র করে উপজেলার শীতলপুরে অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলাম (৭০) এর বাড়িতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরদার মোস্তফা শাহিন। এসময় তিনি মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলামকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন। জরিমানার টাকা পরিশোধের জন্য সময় প্রার্থনা করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলামের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। একপর্যায়ে তিনি মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলামকে হাতকড়া পরিয়ে পুলিশের গাড়িতে উঠানোর জন্য এএসআই সাইদুর রহমানকে নির্দেশ দেন। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয়রা হাতকড়া পরানোর প্রতিবাদ জানান। কিছু সময়ের মধ্যে প্রতিবেশী মহিলারা জরিমানার টাকা যোগাড় করে এনে দিলে ওই মুক্তিযোদ্ধার হাতকড়া খুলে দেয়া হয়।যুদ্ধাহত একজন ম্ুিক্তযোদ্ধাকে হাতকড়া পরানোর ঘটনা জানাজানি হলে সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টির সুষ্ঠু নিরসনের জন্য গত ৪ সেপ্টেম্বর সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মহোদয়কে লিখিতভাবে জানান মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ। জেলা প্রশাসক বিষয়টি নিরসনের জন্য ১২ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য্য করেন। তিনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী ও ইউএনও সরদার মোস্তফা শাহিনকে সাথে নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে এসে উভয়পক্ষের নিকট ঘটনার বর্ণনা শুনে সমঝোতার উদ্যোগ নেন।


Comments are closed.

© সাতক্ষীরা প্রবাহ
Design & Developed BY CodesHost Limited