July 23, 2024, 5:09 pm

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
সাতক্ষীরা থানায় হামলার চেষ্টা, পুলিশের লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি কলারোয়ার ওয়াজেদ সরদার স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন যশোরে ডিবি পুলিশের অভিযানে পিস্তলসহ যুবক আটক বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি হবে : প্রধানমন্ত্রী মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ সাতক্ষীরায় কোটা বিরোধীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া কোটা বহালে হাইকোর্টের রায় বাতিল চেয়ে লিভ টু আপিল আমার নানা-দাদা মুক্তিযোদ্ধা, আমার কোটা লাগে না : মিষ্টি জান্নাত সাতক্ষীরায় কোটা আন্দলনকারী ও ছাত্রলীগ মুখোমুখি অবস্থানে বেনা‌পো‌লে ঘোষণা বহির্ভূত ১৫ হাজার ৭৫০ কেজি সালফিউরিক এসিড জব্দ
জামায়াত-শিবিরের হামলার ৬ বছর: স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেনি সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন

জামায়াত-শিবিরের হামলার ৬ বছর: স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেনি সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন

মাথা, কোমর ও পায়ের প্রচন্ড ব্যথা নিয়ে এখন আর স্বাভাবিকভাবে চলাফেলা করতে পারিনা। অনেক কষ্টে চলাফেরা করলেও ডান পায়ে সমস্যা হয়। তবে বেশি সময় চলাফেরা করলে ডান পা ও মাথায় যন্ত্রণা করে। পুরানো কথা বেশি দিন মনে রাখতে পারিনা, ভুলে যাই। এছাড়া দিনে বা রাতে মাথার ডান পাশে ও কোমরের নীচ থেকে দুই পায়ে যন্ত্রণায় কারনে ঠিকমত ঘুমাতে পারিনা। অধিকাংশ দিনই মাথার যন্ত্রণায় ঘুম না আসায় রাতভর জেগে থাকতে হয়। এসব কথা বলইে অজানা আতংকে কিছু সময় নিরব থাকেন সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন।শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) সাতক্ষীরা সদর উপজেলার তুজুলপুর কৃষক ক্লাবে বসে এ ভাবেই নিজের শারিরিক অবস্থার বর্ণনা দিচ্ছিলেন সন্ত্রাসী হামলার শিকার দৈনিক পত্রদূতের তৎকালীন সিনিয়র প্রতিনিধি ও মানবজমিনের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন।২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বর বিএনপি জামায়াত-শিবিরের হরতাল অবরোধ চলাকালীন সংবাদ সংগ্রহের সময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বিএনপি-জামায়াত-শিবির ক্যাডারা হত্যার উদ্দেশ্যে তার উপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসী হামলার শিকার সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন আরো বলেন, তুজুলপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে সংবাদ সংগ্রহের কাজে সকাল ১০ টার দিকে মটরসাইকেলযোগে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের উদ্দেশ্যে রওনা হলে আখড়াখোলা দেবনগর রাস্তার উপর আগে থেকে অবস্থান করা বিএনপি-জামায়াত ও শিবিরের সস্বস্ত্র ক্যাডাররা আমার গতিরোধ করে এবং চারিদিক থেকে ঘিরে ধরে। এসময় সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা লোহার রড ও দেশীয় ধারাল অস্ত্র দিয়ে আমাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তিনি বলেন, হামলার সময় আমার বৃদ্ব মা আর সন্তানের কথা বলে তাদের কাছে দুই পা ধরে প্রাণ ভিক্ষা চেয়েছিলাম কিন্তু তারা আমার কোন কথা শোনেনি। একপর্যায়ে আমি রক্তাত্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ি। এর পরের ঘটনা তিনি আর বলতে পারেননি।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, গুরুতর জখম অবস্থায় পড়ে থাকা ইয়ারবকে জামায়াত-শিবির ক্যাডাররা মৃত ভেবে রাস্তার পাশে ফেলে দেয়। এসময় এলাকার কিছু মহিলা তাকে উদ্ধার করতে গেলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও বাঁধা দেয় এবং মারপিটের হুমকি দেয়। তারা বলেন, পরে সংবাদ পেয়ে সাংবাদিকরা সাতক্ষীরা আইন শৃংখলা বাহিনীর সহযোগীতায় হাত, পা ভাঙ্গা অবস্থায় উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।স্থানীয় সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম মনি জানান, সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনকে আশংকাজনক অবস্থায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ১৭ দিন অচেতন থাকার পর তার জ্ঞান ফেরে। পরে ১ মাস ৮ দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে কিছুটা সুস্থ্য হলে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। তিনি বলেন, বর্তমানে ভারতের বেলভিউ নার্সিম হোম, পিয়ারলেস ও রবীন্দ্রনাথ টেগর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠলেও তিনি নানাভাবে এখনো শারিরিক ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। রয়েছেন মস্তিষ্কের ঝুকিতে।এদিকে হামরার ঘটনার একদিন পর ইয়ারব হোসেন সেজভাই আবু সিদ্দিক বাদী হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় জামায়াত ক্যাডার হাবিবুর রহমান (রেইউ মাদরাসার শিক্ষক), তুজলপুর গ্রামের শিবির ক্যাডার আলম, বাশার, ইব্রাহিম, রায়হানসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৩০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। ইতিমধ্যে এ জঘন্যতম হামলার সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনকে হত্যাপ্রচেষ্টার ঘটনার দীর্ঘ ৬ বছর পার হয়েছে।অপরদিকে এ মামলায় কয়েকজন আসামীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলেও বাকী আসামিরা রয়েছে ধরা ছোয়ার বাইরে। তবে এরইমধ্যে আবার গ্রেপ্তারকৃত অসামীরা জামিন নিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। যার কারনে অসুস্থ্য সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে দাবি করেন।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com