June 23, 2024, 4:42 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
তালায় ইউপি সদস্য নিমাইকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা

তালায় ইউপি সদস্য নিমাইকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা

এসএম বাচ্চু,তালা(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি: তালা উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের পরপর ৩(তিন)বার নির্বাচিত ইউপি সদস্য নিমাই সানাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে । অভিযোগ সুত্রে প্রকাশ, ২০১৬ সালের ২২ মার্চ ইউপি নির্বাচনের পরের দিন ২৩ মার্চ দুপুর খেশরা ইউপির ১নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য ও কুলপোতা গ্রামের মৃত করুনা ময় সানার ছেলে নিমাই সানার সমর্থক ও পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক মেশেরডাঙ্গা গ্রামের মৃত:প্রফুল্ল ব্যানার্জীর ছেলে কার্ত্তিক ব্যানার্জীর মধ্যে কাথাকাটাকাটি এক পর্যায়ে কাত্তিক ব্যানার্জীর ভাই আদিত্যসহ অন্যান্যরা নিমাইয়ের সমর্থকদের মারপিট করে। এতে কয়েকজন আহত হয়। এঘটনায় উভয় পক্ষ পরষ্পরকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালতে পৃথক পৃথক দু’টি মামলা করেন। যার একটি মামলার বাদী ইউপি সদস্য নিমাই সানা নিজেই। যার নং-২৯/১৬। অপর মামলাটি করেন,কাত্তিকের ভাই আদিত্য ব্যানার্জী। ২৪ মার্চ দায়ের করা মামলায় উল্লেখ করা হয় যে,নব নির্বাচিত ইউপি সদস্যসহ অন্যান্যরা তার ভাই কার্ত্তিককে বাড়িতে না পেয়ে তার স্ত্রী নমিতাকে পিটিয়ে মাথা ফাঁটিয়ে দেয়। এঘটনায় নিমাই সানাকে প্রধান আসামী করে ২০ জনের নামে অজ্ঞাতনামা সহ আরো ১৫/২০ জনকে আসামী করে তালা থানায় ঐ মামলাটি
দায়ের করেন। যার নং-১২। জিআর মামলা নং২৯/১৬। পরে মামলাটি বিচারের জন্য চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্থানান্তর হয়,যার টিআর মামলা নং-৩০৮/১৮। উভয় মামলায় আসামীরা জেল-হাজত খেটেছেন। একপর্যায়ে ঘটনার প্রায় আড়াই বছর পর চলতি বছরের ১০ মে’ নমিতা ব্যানার্জীর মৃত্যু হলে মামলাসহ নানা আইনী জটিলতায় লাশের সৎকার করতে না পেরে ৪ দিন পর ১৩ মে নিহতের ভাসুর ও সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলার বাদী প্রভাষক
আদিত্য ব্যানার্জী বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নমিতার মৃত্যুর বিষয়টি অবহিতপূর্বক তার লাশের সৎকারের জন্য আবেদন করলে
আদালতের বিজ্ঞ বিচারক বিলাশ মন্ডল মামলাটির সত্য-মিথ্যা নির্ধারণপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন ও কাগজপত্রাদিসহ ১১ জুলাই
প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সাতক্ষীরা জেলা গোয়েন্দা শাখা(সিআইডি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।এরআগে ইউপি সদস্য নিমাই সানার দায়ের করা মামলায় সরবরাহকৃত মেডিকেল সনদ পত্র গুলো কর্মকর্তার কাছে জাল বলে প্রতিয়মান হলে
আসামীদের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। এছাড়া ঘটনার দিন ইউপি সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত না থাকলেও তাকে উপস্থিত
দেখিয়ে মামলাটি দায়ের হয়। পরবর্তী পর্যায়ে আইনের মারপ্যাচে তাকেসহ অন্যান্যদের ফাঁসিয়ে দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন এলাকাবাসী।
এলাকাবাসী জানায়,মৃত নমিতার ভাসুর(স্বামীর বড় ভাই) আদিত্যর সাথে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য নিমাই সানার বিভিন্ন সময় নানা কারণে
বিবাদ চলে আসছিল। যার জের হিসেবে প্রথমত ২৩ মার্চের গোলযোগে অনুপস্থিত নিমাইকে সম্পৃক্ত করে মামলাটি দায়ের করেন। পরে ঘটনার
প্রায় আড়াই বছর পরে রোগ-শোকে মৃত্যু নমিতার মৃত্যুর জন্যও তাকে দায়ী করেন। শুধু এখানেই শেষ নয়,নমিতার মৃত্যুর পর তার লাশের সৎকার না করে পাবলিক সেন্টিমেন্ট গ্রো এমনকি আদালতের কাছ থেকে বাড়তি সুবিধা নিতে তার মৃত্যুর ৪ দিন পর্যন্ত লাশ বাড়িতে বরফজাত করে রেখে আদালতকে জানায়,মারামারির ঘটনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।
স্বপন দেবনাথের দায়ের করা খুলনার বিজ্ঞ চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ইউপি সদস্য নিমাই সানাসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে একটি
মামলা দায়ের করেন। যার নং-সিআর ৪২৯/১৭। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার দীর্ঘ অনুসন্ধানে আদালতে জাল মেডিকেল সনদের বিষয়টি উঠে আসে।
পাশাপাশি সনদগুলোর সত্যতা নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় ভুক্তভোগীদের পক্ষের বিজ্ঞ আইনজীবী খুমেক হাসপাতালের সুপারকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান
করেন। এর জবাবে খুমেক হাসপাতালের সুপার ২০১৭ সালের ৫ এপ্রিল’ ১০২৫ নং স্মারকে সংশ্লিষ্ট মেডিকেল সনদগুলো সঠিক নয় বলে প্রত্যয়ন দেন। তবে কি করে কারা সনদগুলো সরবরাহ করেছে তার বিস্তারিত কিংবা আইনের আওতায় আনা হয়নি বলেও অভিযোগ ভূক্তভোগীদের। তাদের দাবি,পরিকল্পিতভাবে তাদেরকে ফাঁসাতে আদিত্য গং সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। এবিষয়ে ইউপি সদস্য নিমাই সানা জানান,মেডিকেল সনদ গুলো যদি জ্বাল হয় সেটার দায়ভার আমার উপড় কেন আসবে ।আমি ৩(তিন)বার নির্বাচিত ইউপি সদস্য তাই আদিত্য গং রা দীর্ঘ দিন যাবৎ আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করছে । মূলত আমাকে আইনের মারপ্যাচে আটকে তার ইউপি সদস্য পদটি খারিজ করার জন্য আদিত্য গং দীর্ঘ দিন যাবৎ ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। তাই আমি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছি।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com