April 20, 2024, 8:59 pm

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
কলারোয়া উপজেলা চাকুরীজীবি কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়নের সাধারণ সভা সাতক্ষীরায় তীব্র তাপদাহে জনজীবন অতিষ্ট কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণা খাতুনের আত্মহত্যা সাতক্ষীরায় সুন্দরবনে হঠাৎ বাঘের আক্রমণে মৌয়াল নিহত সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচার-প্রচারনায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন প্রভাষক এম সুশান্ত গণভবনের শাক-সবজি কৃষক লীগ নেতাদের উপহার দিলেন শেখ হাসিনা তালায় পানি নিষ্কাশন এর খাল বন্ধ করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ কলারোয়ায় তৃতীয় প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলা শ্যামনগরে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের দাবিতে শ্যামনগরে ধর্মঘট
নজর কাড়া হলুদের সমারোহে স্বপ্ন দেখছেন চাষিরা

নজর কাড়া হলুদের সমারোহে স্বপ্ন দেখছেন চাষিরা

default

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার চরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা মৌ মৌ গন্ধে চারিদিক মাতোয়ারা। নজর কাড়ছে সরিষার হলুদ ফুলের সমারোহ। সরিষা ফুলের নয়নাভিরাম দৃশ্য পাল্টে দিয়েছে উপজেলার ছোট ভাকলা, দেবগ্রাম, উজানচর ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ফসলের মাঠের দৃশ্যপট। শীতের শিশিরভেজা সকালে ঘন কুয়াশার চাদরে মোড়ানো মাঠ দেখে মন জুড়িয়ে যায়। গোয়ালন্দ উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে এ মৌসুমে ব্যাপক সরিষার আবাদ করা হয়েছে। সরিষার সবুজ গাছের ফুলগুলো শীতের সোনাঝরা রোদে ঝলমল করছে। এ যেন এক অপরূপ সৌন্দর্যের দৃশ্য।দেখে যেন মনে হচ্ছে প্রকৃতি কন্যা সেজেছে গায়েহলুদ বরণ সেজে। মৌমাছির গুণগুণ শব্দে ফুলের রেণু থেকে মধু সংগ্রহ আর প্রজাপতির এক ফুল থেকে আরেক ফুলে পদার্পণ এ অপরূপ প্রাকৃতিক দৃশ্য সত্যিই যেন মনোমুগ্ধকর এক মুহূর্ত। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে এমনি চিত্র দেখা যায়।

দেবগ্রামের কাউয়াজানি এলাকার কৃষক মোক্তার আলী শেখ বলেন, সরিষা চাষে খরচ কম কিন্তু লাভটা অনেক বেশি। ক্ষেতে সার একবারের বেশি দিতে হয় না, পরিশ্রমও অনেক কম। আমি গতবার ৩বিঘা জমিতে সরিষার আবাদ করেছিলাম। ফলন ও লাভ বেশি হওয়ায় এবার ৬ বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছি। আশা করছি এবারও ভালো ফলন ও দাম ভালো পাব। উজানচর ইউনিয়নের চরমাহিদাপুর এলাকার কৃষক হাবিবুর রহমান বলেন, ধানসহ অন্যান্য খাদ্যশস্য উৎপাদন করতে যেমন পরিশ্রম হয় তেমনি খরচও হয় অনেক। কিন্তু বাজারে ন্যায্যমূল্য পাই না। তাই অল্প সময়ে স্বল্প খরচে ও পরিশ্রম কম হওয়ায় এ অঞ্চলের কৃষকেরা সরিষা চাষেই বেশি আগ্রহী হয়ে উঠছে।

গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রকিবুল ইসলাম জানান, এ বছর সরিষা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১ হাজার ২৭০ হেক্টর জমিতে। কিন্তু গত বছর ফলন ভালো ও দাম বেশি পাওয়ায় এবার এ অঞ্চলে কৃষকেরা বারি-১৪, ১৭, ১৮ ও বিনা সরিষা-৪ এবং মাঘি সরিষা টরি-৭সহ নানা জাতের ১ হাজার ৪৬৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ করেছে। এ অঞ্চলে প্রতি বিঘা জমিতে ৫ মণ পর্যন্ত সরিষার ফলন হয়। অনুকূল আবহাওয়া থাকলে এবারও সরিষার বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামীতে এই অঞ্চলের ভোজ্যতেলের চাহিদা পূরণের জন্য সরিষার পাশাপাশি তিল, তিসিসহ অন্যান্য তৈলবীজ আবাদের জন্য কৃষকদের আগ্রহী করতে উদ্যোগ নিয়েছি বলে জানান তিনি।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com