April 24, 2024, 3:57 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
খুলনায় অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার তালায় ৬০ বছর পর ৩৩ বিঘা সরকারি জমি উদ্ধার সাতক্ষীরায় বৃষ্টির আশায় ইসতিসকার নামাজ আদায় পাইকগাছায় শেখ হাসিনা প্রদত্ত খাবার পানি সংরক্ষণের জলাধার বিতরণ হঠাৎ এফডিসিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে উপকূলের বিস্তীর্ণ জনপদের মাটি ও মানুষ সাতক্ষীরায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোটরসাইকেল বহরে বোমা হামলা প্রাণ প্রাণসায়ের খালের ময়লা-আবর্জনা অপসারণ কার্যক্রম শুরু সাতক্ষীরায় সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাস্তবায়নে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশলা সাতক্ষীরায় বেসিক ট্রেড স্কীল ডেভালপমেন্ট ফোরামের মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ
প্রকল্প নির্ভরতা কমিয়ে রাজস্ব আহরণ বাড়ানোর নির্দেশনা

প্রকল্প নির্ভরতা কমিয়ে রাজস্ব আহরণ বাড়ানোর নির্দেশনা

প্রকল্প নির্ভরতা কমিয়ে রাজস্ব আহরণ বাড়ানোর নির্দেশনা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। মঙ্গলবার (২ মার্চ) নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে রাজস্ব সম্মেলনে তিনি এ নির্দেশনা দেন। সম্মেলনে সিটি করপোরেশনের রাজস্ব বিভাগের সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় মেয়র বলেন, আমরা আগে অনেক কিছুই করতে পারিনি। অনেক সীমাবদ্ধতার মধ্যে ছিলাম। কেননা আমরা রাজস্ব আহরণ করতে পারিনি। আমাদেরকে সরকারের মুখাপেক্ষী হতে হয়েছে, প্রকল্প নির্ভর হয়ে চলতে হয়েছে। আমরা প্রকল্প জমা দিলে সরকার আমাদের অর্থ দেয়। পরে অর্থ ছাড় দেওয়া হয়। এরপর আমরা কাজ করি। এ প্রকল্প নির্ভরতা কমিয়ে নিজস্ব সক্ষমতা বাড়াতে হবে। এজন্য অবশ্যই রাজস্ব আহরণ বাড়াতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের ট্রেড লাইসেন্স এর সংখ্যা মাত্র ২ লাখ ১৮ হাজার। এটি পর্যাপ্ত নয়, অপ্রতুল। এর বাইরেও অনেকেই আমাদের শহরে ব্যবসা করছে, কিন্তু করের আওতায় আসেনি। সুতরাং তাদেরকে করের আওতায় আনতে হবে। তেমনি পৌর করের (হোল্ডিং ট্যাক্স) সংখ্যা মাত্র ১ লাখ ৮৩ হাজার। এই সংখ্যাটা অনেক আগের মনে হচ্ছে। এ সংখ্যাটি অনেক বাড়বে। সুতরাং হোল্ডিং ট্যাক্সের জন্য সাড়ে ৩০০ কোটি টাকা এবং ট্রেড লাইসেন্সের জন্য ২০০ কোটি টাকার যে লক্ষ্যমাত্রা আমরা দিয়েছি, সেটি আদায়যোগ্য। আমরা সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সুষ্ঠুভাবে যদি কাজ করি তবে সেটি শতভাগ আদায় করা সম্ভব।

তাপস বলেন, আমাদের যা প্রাপ্য আমরা তা-ই আমরা আদায় করতে চাচ্ছি। আমাদের বিদ্যমান লোকবল দিয়েই সেটা আদায় করা সম্ভব। তারপরও আপনারা যে দাবি-দাওয়া দিয়েছিলেন, সেগুলো আমরা গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছি। আপনাদের পদোন্নতির পর্ব শেষ। সামনের বছর আবারও পদোন্নতি পর্ব করব। আমাদের জনবলের যে সঙ্কট রয়েছে, অবকাঠামোগত যে দুর্বলতা রয়েছে সেটিও আমরা পূরণ করব। কিন্তু আমার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করে দিতে হবে।

এসময় উপস্থিত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি সতর্কবাণী উচ্চারণ করে তিনি বলেন, আমি দুষ্টের দমন, শিষ্টের লালনে বিশ্বাস করি। যিনি ভালো করবেন, সংস্থাকে আপন মনে করে কাজ করবেন, তাকে অবশ্যই পুরস্কৃত করা হবে, প্রণোদনা দেওয়া হবে। কিন্তু যিনি অন্যায় করবেন, মানুষকে হয়রানি করবেন, তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা যত বেশি রাজস্ব আহরণ করতে পারব তত বেশি নাগরিক সেবা বাড়াতে পারব। একইসঙ্গে আপনাদের সুযোগ-সুবিধা বলেন বা কাজের পরিবেশ বলেন বা মান-সম্মান- যাই বলেন না কেন, সবই বাড়বে। এসময় তিনি রাজস্ব সংক্রান্ত তথ্য হালনাগাদ করার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্দেশনা দেন।

করপোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফুল হকের সঞ্চালনায় রাজস্ব সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী ও সচিব আকরামুজ্জামান। এসময় অন্যান্যের মধ্যে আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তারা, ডিএসসিসির কট কর্মকর্তা, উপ-কর কর্মকর্তা, রেভিনিউ সুপারভাইজার, লাইসেন্স সুপারভাইজার, বাজার সুপারভাইজার ও রেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্টরা উপস্থিত ছিলেন।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com