April 12, 2024, 10:47 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
ফিরে দেখা ২০২০

ফিরে দেখা ২০২০

করোনার মধ্যেও একাধিক নতুন নাটককরোনার কারণে বছরের বেশিরভাগ সময় মঞ্চ ছিল অবরুদ্ধ। কিন্তু লকডাউনের দিনগুলোতে অনলাইনে সক্রিয় ছিলেন নাট্যকর্মীরা। লকডাউন শেষে নতুন নাটকও মঞ্চে এসেছে। সবমিলিয়ে ২০২০-এ মঞ্চ কেমন ছিল

মঞ্চে নতুন নাটক

২ জানুয়ারি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ মঞ্চে আনে ‘সোহরাব রুস্তম’। নাট্যরূপ দিয়েছেন ড. মো. আমিনুল ইসলাম, নির্দেশনায় ছিলেন রেজা আরিফ। এ ছাড়া ‘দহনদয়িতা’ শিরোনামে আরেকটি নাটক মঞ্চে আনে জাবি নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ। লিখেছেন শুভাশিস সিনহা, নির্দেশনা দিয়েছেন ইউসুফ হাসান অর্ক। ৪ জানুয়ারি নাট্যদল ‘শূন্যেয়া’ মঞ্চে আনে ‘মানুষ’। জাভেদ মাহমুদের লেখা থেকে নির্দেশনা দিয়েছেন নাজমুল হোসেন। ১৫ জানুয়ারি প্রাচ্যনাট স্কুল অব অ্যাক্টিং অ্যান্ড ডিজাইনের শিক্ষার্থীরা মঞ্চে আনে ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’। বার্টল্ড ব্রেখটের গল্প অবলম্বনে রূপান্তর করেছেন আসাদুজ্জামান নূর। নির্দেশনা দিয়েছেন মনিরুল ইসলাম রুবেল। ২৪ জানুয়ারি দেশ নাটক মঞ্চে আনে ‘জলবাসর’। রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন মাসুম রেজা। সৈয়দ জামিল আহমেদের নির্দেশনায় নাট্যদল ‘স্পর্ধা’ মঞ্চে এনেছে নাটক ‘৪.৪৮ মন্ত্রাস’। ১৮ ডিসেম্বর নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয়। সারাহ কেইনের ‘৪.৪৮ সাইকোসিস’ থেকে ‘৪.৪৮ মন্ত্রাস’ নাটকটি বাংলায় অনুবাদ করেছেন শাহমান মৈশান ও শরীফ সিরাজ। ৬ নভেম্বর নাট্যদল অনুস্বর মঞ্চে আনে ‘মূল্য অমূল্য’। আর্থার মিলারের ‘দ্য প্রাইস’ অবলম্বনে ভাবানুবাদ করেছেন অসিত মুখোপাধ্যায়, রূপান্তর ও নির্দেশনা দিয়েছেন মোহাম্মদ বারী। এ ছাড়া ঢাকা নান্দনিক মঞ্চে আনে ‘গ্রহণকাল’, শৌখিন থিয়েটার মঞ্চে আনে ‘ধূম্রজ্বালা’, ঢাকা থিয়েটার মঞ্চে আনে ‘একটি লৌকিক অথবা অলৌকিক স্টিমার’, রেপার্টরি গার্ডেন থিয়েটার মঞ্চে আনে ‘গল্পকথা’, নাট্যদল ‘এথিক’ মঞ্চে আনে ‘আয়নাঘর’।

সৈয়দ হক নাট্যমঞ্চ

পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজারে যাত্রা শুরু করেছে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের নামে নতুন একটি স্টুডিও থিয়েটার মিলনায়তন। গত ২৬ সেপ্টেম্বর সৈয়দ হকের চতুর্থ প্রয়াণ দিবসে নাট্যোৎসব আয়োজনের মাধ্যমে মিলনায়তনটির উদ্বোধন হয়। উদ্বোধন করেন আসাদুজ্জামান নূর। যৌথভাবে নাট্যোৎসব আয়োজন করে মৈত্রী থিয়েটার ও শৌখিন থিয়েটার।

নতুন নাট্যদল

বছরের শুরুতে ৪ জানুয়ারি ‘মানুষ’ নাটকের প্রদর্শনীর মাধ্যমে অভিষেক হয় নতুন নাট্যদল ‘শূন্যেয়া’র। এ নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন নাজমুল হোসেন। এ ছাড়া গত ১৬ ডিসেম্বর আত্মপ্রকাশ করেছে নতুন নাট্যদল ‘থিয়েটারিয়ান’। গত ১২ ডিসেম্বর ২৭ জন সদস্য প্রাঙ্গণেমোর ছাড়ার ঘোষণা দেন। এর আগে আরও ৩ জন প্রাঙ্গণেমোর ছেড়েছেন। এই ৩০ জন মিলে এবার গড়েছেন নতুন নাট্যদল ‘থিয়েটারিয়ান’। আগামী বছরই নাটক নিয়ে মঞ্চে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছে নতুন এ নাট্যদলটি। এদিকে প্রাঙ্গণেমোর নাট্যদল ও শব্দ নাট্যচর্চা কেন্দ্র যৌথভাবে ১৬ ডিসেম্বর মঞ্চে এনেছে নাটক ‘মেজর’। এটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন অনন্ত হিরা।

অনলাইন আড্ডা

করোনার ঘরবন্দি সময়ে অনলাইন আড্ডার আয়োজন করে থিয়েটার পত্রিকা ‘ক্ষ্যাপা’। টানা ৫০টি লাইভ আড্ডায় অংশ নেন ফেরদৌসী মজুমদার, রামেন্দু মজুমদার, নাসির উদ্দীন ইউসুফ, শিমূল ইউসুফ, মামুনুর রশীদ, আতাউর রহমান, আজাদ আবুল কালাম, হাসান আরিফ, দীপান্বিতা, ত্রপা মজুমদার, অপি করিম, রাহুল আনন্দ, কনক আদিত্য, কলকাতার রিনি বিশ্বাস, আগরতলার শুভ্রজিৎ ভট্টাচার্যসহ শতাধিক শিল্পী। এই আড্ডা থেকে সংগৃহীত অর্থ করোনাকালে কর্মহীন হয়ে পড়া নাট্যকর্মীদের দেওয়া হয়।

আলোচিত ঘটনাবলি

মঞ্চ নাটকের পুরোধা ব্যক্তিত্ব আলী যাকেরের প্রয়াণ এ বছরে থিয়েটারের জন্য সবচেয়ে বড় ক্ষতি। এছাড়া আলোচনা আসে শিল্পকলা একাডেমির সামনে প্রাঙ্গণেমোরের সদস্যদের সবজি বিক্রির ঘটনা। এর দলপ্রধান অনন্ত হিরা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নাট্যকর্মীদের সবজি বিক্রির ঘটনাটি আসলে এক ধরনের প্রতিবাদ ছিল। রাষ্ট্রের অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবে, সবজির ভ্যান নিয়ে নাট্যকর্মীরা রাস্তায় দাঁড়িয়েছিল।’ সরকারি নির্দেশনায় গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের নাট্যমঞ্চগুলো বন্ধ হয়ে যায়।

সারা দেশে কর্মহীন হয়ে পড়ে অনেক নাট্যকর্মী। মার্চ মাসেই ‘সংস্কৃতিকর্মীবৃন্দ’ নামে একটি প্ল্যাটফর্ম থেকে শিল্পীদের সহায়তা করা হয়। পরবর্তীতে বটতলা, প্রাচ্যনাট, থিয়েটার স্বজন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, দনিয়া সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন নাট্যকর্মীদের পাশে দাঁড়ায়। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে প্রায় ১০ হাজার সংস্কৃতিকর্মীকে সহায়তা করা হয়।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com