February 29, 2024, 5:37 pm

বাঁচতে থানায়ও থেকেছে বহুদিন: ছয় বছরে নয়বার হামলায় ভাই ভাইপো নিহতের পর এবার খুন হলো আ.লীগ নেতা নজরুল

বাঁচতে থানায়ও থেকেছে বহুদিন: ছয় বছরে নয়বার হামলায় ভাই ভাইপো নিহতের পর এবার খুন হলো আ.লীগ নেতা নজরুল

ডেস্ক নিউজ :সাতক্ষীরার কদমতলায় আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলামকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। আজ সোমবার বেলা ১১ টায় তার লাশ শহর থেকে তিন কিলোমিটার দুরে কদমতলার হাজামপাড়ায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এর কয়েক মিনিট আগে তাকে পেছন থেকে পর পর দুই রাউন্ড গুলি করে সন্ত্রাসীরা।আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান জানান নজরুল ইসলাম (৫০) তার বাড়ি কুচপুকুর থেকে মোটর সাইকেলে কদমতলায় এসেছিলেন বাজার করতে। বাজার সওদা নিয়ে ফের মোটর সাইকেলে ফিরে যাবার সময় ইটভাটার পাশ থেকে কে বা কারা তার পেছন দিকে থেকে দুই রাউন্ড গুলি করে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নজরুল মোটর সাইকেল চালিয়ে দ্রুত এগিয়ে যাবার চেষ্টা করতেই হাজামপাড়া এলাকায় তিনি পড়ে যান। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে তিনি জানান ঘাতকরাও ছিল মোটর সাইকেলে।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায় পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইলতুৎমিশ বলেন লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে কারা তার ওপর এই হামলা চালিয়েছে সে সম্পর্কে তিনি কিছুই জানাতে পারেন নি। আওয়ামী লীগ নেতা নজরুলকে গুলি করে হত্যার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম। তারা অবিলম্বে ঘাতকদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে নজরুল ইসলাম পরিবারের ওপর ২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত ৯ বার সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এ সব হামলায় তার আপন সহোদর ২০১৩ সালের ৫ ডিসেম্বর সিরাজুল ইসলাম ও সিরাজুল ইসলামের ছেলে যুবলীগ নেতা রাসেল কবির ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল নিহত হন। এসব হামলায় নজরুল ইসলাম নিজে তিন বার এবং তার বোন শাহানা খাতুন, বোন জামাই জাহান আলি, আত্মীয় ইউসুফ আলি, ভাই আমজাদ হোসেন, আরেক বোন জামাই কওসার আলি ও ভাগিনা সিমল আহত হন। হামলার পর থেকে নজরুল নিরাপত্তার জন্য দীর্ঘদিন ধরে সাতক্ষীরা থানায় রাত্রি যাপন করতেন। তিনি নিজেও সন্ত্রাসীদের গুলি ও বোমার আঘাতে কয়েক দফা আহত হন।


Comments are closed.

© সাতক্ষীরা প্রবাহ
Design & Developed BY CodesHost Limited