June 22, 2024, 3:51 pm

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
ভোমরায় এক ব্যবসায়ীর ২ দুই ট্রাক পেঁয়াজ আতœসাৎ করে উল্টো মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ

ভোমরায় এক ব্যবসায়ীর ২ দুই ট্রাক পেঁয়াজ আতœসাৎ করে উল্টো মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ

 ট্রান্সপোর্ট মালিক ফিরোজ হোসেন কর্তৃক সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে আমদানীকৃত এক ব্যবসায়ীর ২ দুই ট্রাক পেঁয়াজ আতœসাৎ করে উল্টো তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন, সদর উপজেলার ঘোনা গ্রামের অবসর প্রাপ্ত থানা স্বাস্থ্য পরিদর্শক ডাঃ বিমল কৃষ্ণ মন্ডলের ছেলে ভুক্তভোগী দিপংকর মন্ডল।
তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত ভোমরা স্থল বন্দরে সুনামের সহিত ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। আমি এলসির মাধ্যমে ভারত থেকে বিভিন্ন মালামাল আমদানী করে তা ট্রান্সপোর্টের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রেরন করে থাকি। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১২/০৯/২০১৯ তারিখে ভারত থেকে ২ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানী করি। যার ওজন ৪০ টন। মূল্য ২২ লক্ষ টাকা। উক্ত পেঁয়াজ কুমিল্লা ও ঢাকায় প্রেরন করার জন্য আমি মের্সাস আর.এফ ট্রান্সপোর্টে যাই এবং ট্রান্সপোর্ট মালিক ফিরোজ হোসেনের সাথে ২৮ হাজার টাকা ভাড়া চুক্তিতে আবদ্ধ হই। চুক্তি অনুযায়ী গত ১৪/০৯/২০১৯ তারিখে মালামাল গুলো গন্তব্য স্থানে পৌছানোর কথা থাকলেও তা পৌছায়নি। আমি এ সময় হতভম্ভ হয়ে তড়িঘড়ি করে আর.এফ ট্রান্সপোর্টে যাই এবং ট্রান্স পোর্ট মালিক ফিরোজ হোসেনের কাছে মালামাল না পৌছানোর ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি আমাকে মালের কোন খবর না দিয়ে আমাকে উল্টো হুমকি ধামকি দিয়ে বের করে দেন। এরপর আমি জানতে পারি তিনি আমার ওই ২ ট্রাক পেঁয়াজ আতœসাৎ করেছেন। আমি কোন উপায় না পেয়ে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এসে এর প্রতিকার চেয়ে তার বিরুদ্ধে একটি সংবাদ সম্মেলন করি এবং থানায় একটি মামলা দায়ের করি। সদর থানার এসআই মানিক তদন্ত করে এর সত্যতা পাওয়ায় তিনি মামলাটি রেকর্ড করেন। মামলা করার পর থেকে এ মামলার প্রধান আসামী ফিরোজ ও তার সাঙ্গ পাঙ্গরা আমার ও আমার সাক্ষীদের হুমকি ধামকি প্রদর্মন করে যাচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২০/০৯/২০১৯ তারিখ রাত ৮ টায় ফিরোজ আমার সাক্ষী আশরাফুল ও রামকৃষ্ণ বিশ্বাসকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে তাদেরকে মিথ্যা মামলায় জেল খাটানোর হুমকি প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, ফিরোজ মামলা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ও ২ ট্রাক পেঁয়াজ ফিরিয়ে না দেয়ার জন্য গত ২১ সেপ্টেম্বর মিথ্যা গল্প সাজিয়ে কাল্পনিক তথ্য দিয়ে সদর থানায় আমি ও আমার সাক্ষী আশরাফুল এবং সাবেক ক্রিকেটার বিদ্যুৎ বিশ্বাসের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। যা সম্পূর্ন মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। এমতাবস্থায় তিনি (দিপংকর) এ মামলা থেকে অব্যহতিসহ প্রতারক হুন্ডি ব্যবসায়ী, চোরাচালানী ও মাদক সেবী ট্রান্সপোর্ট মালিক ফিরোজ হোসেনের গ্রেফতারের দাবীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, আশরাফুল ইসলাম, বিদ্যুৎ বিশ্বাস ও অনুপম সরকার।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com