July 23, 2024, 5:43 pm

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
সাতক্ষীরা থানায় হামলার চেষ্টা, পুলিশের লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি কলারোয়ার ওয়াজেদ সরদার স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন যশোরে ডিবি পুলিশের অভিযানে পিস্তলসহ যুবক আটক বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি হবে : প্রধানমন্ত্রী মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ সাতক্ষীরায় কোটা বিরোধীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া কোটা বহালে হাইকোর্টের রায় বাতিল চেয়ে লিভ টু আপিল আমার নানা-দাদা মুক্তিযোদ্ধা, আমার কোটা লাগে না : মিষ্টি জান্নাত সাতক্ষীরায় কোটা আন্দলনকারী ও ছাত্রলীগ মুখোমুখি অবস্থানে বেনা‌পো‌লে ঘোষণা বহির্ভূত ১৫ হাজার ৭৫০ কেজি সালফিউরিক এসিড জব্দ
রাত পোহালেই সদর ও পৌর আ.লীগের সম্মেলন: তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা চান ইলেকশন

রাত পোহালেই সদর ও পৌর আ.লীগের সম্মেলন: তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা চান ইলেকশন

 রাত পোহালেই আগামীকাল ৭ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে পৌর ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে সদর উপজেলাজুড়ে চলছে উৎসবমূখর পরিবেশ। ইতোমধ্যে জেলার কলারোয়া, আশাশুনি, দেবহাটা, কালিগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমূখর পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল ৭ ডিসেম্বর এবং তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে ৮ ডিসেম্বর। সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অধিবেসনে তৃণমূল চায় ইলেকশন। তারা সিলেকশন চায় না-মন্তব্য করে বলেছেন, গোপন ব্যালটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করলে ত্যাগী ও পোড় খাওয়া পরীক্ষিত নেতারাই নেতৃত্বে আসার সুযোগ পাবেন। তাতে দল বেশি উপকৃত ও শক্তিশালী হবে। সিলেকশনের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করলে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন হয়না। তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা তিনটি বছর অপেক্ষা করেন এ সম্মেলনের জন্য। সেখানেও যদি তারা মতামত প্রকাশ করতে না পারেন তাহলে অনেকেই কষ্ট পান। তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামতকে উপেক্ষা করে কাউন্সিল সম্পন্ন হলে দলীয় গ্রুপিং হওয়ার আশঙ্কা থাকে। কর্মীদের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। নেতৃত্বের বিকাশ ও নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টিতে অনেক সময় বাঁধা সৃষ্টি হয়। তাই দ্বিধা-দ্বন্দ্বের অবসান ঘটিয়ে দলকে শক্তিশালী করতে হলে ইলেকশনের কোন বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ উপ-মহাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন রাজনৈতিক দল। গণতান্ত্রিক দল তো বটেই। গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী। শুরু থেকেই দলটি গণতন্ত্রের চর্চা অব্যাহত রেখেছে। দেশের স্বাধীনতা এসেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে। তাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় চির বিশ্বাসী এ দলের নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে তৃণমূল আওয়ামী লীগ চায় ইলেকশন।এদিকে শনিবার সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলকে ঘিরে শহিদ আব্দুর রাজ্জাক পার্ককে সাজানো হয়েছে নান্দনিক রূপে। সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থীরা নেতাকর্মীদের সমর্থন আদাইয়ের লক্ষ্যে প্রচার-প্রচারণা অব্যাহত রেখেছেন। তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা পছন্দের প্রার্থীদের সমর্থনে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করেছেন।সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি। অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় সংসদের হুইপ ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আল মাহামুদ স্বপন এমপি, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সভাপতি এসএম শওকাত হোসেন নেতৃত্বে আসতে পারছেন না-এটা অনেকটা নিশ্চিত। ফলে সভাপতি পদে আসছেন নতুন মুখ। প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো. শাজাহান আলী, ভোমরা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম ও বৈকারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অছলে।সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হচ্ছেন মো. মোস্তাফিজুর রহমান নাছিম, এহছান বাহার বুলবুল, শেখ আব্দুর রশিদ, সরদার নজরুল ইসলাম, মো. কামরুল ইসলাম, প্রভাষক এম সুশান্ত, ওবায়দুর রহমান লাল্টু, মাস্টার মফিজুল রহমান প্রমুখ।পৌর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি মো. আবু সায়ীদ ও নাছেরুল হকের নাম শোনা যাচ্ছে।পৌর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন ও আনিছ খান চৌধুরী বকুলের নাম শোনা যাচ্ছে।
প্রার্থীদের অধিকাংশই নেতা নির্বাচনে ইলেকশনের প্রতি বেশি আস্থা প্রকাশ করেছেন। সিলেকশনে নেতা নির্বাচনের বিপক্ষে বলেছেন অধিকাংশ প্রার্থীরা।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com