April 20, 2024, 7:54 pm

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
কলারোয়া উপজেলা চাকুরীজীবি কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়নের সাধারণ সভা সাতক্ষীরায় তীব্র তাপদাহে জনজীবন অতিষ্ট কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণা খাতুনের আত্মহত্যা সাতক্ষীরায় সুন্দরবনে হঠাৎ বাঘের আক্রমণে মৌয়াল নিহত সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচার-প্রচারনায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন প্রভাষক এম সুশান্ত গণভবনের শাক-সবজি কৃষক লীগ নেতাদের উপহার দিলেন শেখ হাসিনা তালায় পানি নিষ্কাশন এর খাল বন্ধ করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ কলারোয়ায় তৃতীয় প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলা শ্যামনগরে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের দাবিতে শ্যামনগরে ধর্মঘট
সাতক্ষীরায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ভূয়া সাংবাদিক

সাতক্ষীরায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ভূয়া সাংবাদিক

সাতক্ষীরার দেবহাটায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজিকালে ব্যবসায়ীদের হাতে ধরা পরবর্তী গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছে নাজমুল হোসেন (৩০) ও রুবেল হোসেন (২৮) নামের দুই প্রতারক। বুধবার দুপুর ২টার দেবহাটার উপজেলার কুলিয়া মৎস্য ও রেণু সেডে মৎস্য ব্যবসায়ীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজিকালে প্রতারক নাজমুল ও রুবেলকে গণধোলাই দেয় ব্যবসায়ীরা।

গণধোলাইয়ের শিকার নাজমুল নিজেকে সাতক্ষীরার বাসিন্দা এবং রুবেল আশাশুনির কুল্যা ইউনিয়নের বাসিন্দা উল্লেখ করে একাধিক ভুঁইফোড় ও নামসর্বস্ব পত্রিকার জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি দাবী করেন। তবে তাদের মধ্য থেকে রুবেলকে বড় ধরনের প্রতারক আখ্যায়িত করে আশাশুনির কুল্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, একসময়ে রুবেল ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রে কাজ করতো।

তার বিরুদ্ধে প্রতারণা, ভিজিডি সুবিধাভোগীদের অর্থ আত্মসাত, সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে অর্থ হাতিয়ে নেয়াসহ বহু অভিযোগ থাকায় ইতোপূর্বেই তাকে পরিষদ থেকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে।

সম্প্রতি সাতক্ষীরার নাজমুল নামের এক প্রতারকের সাথে মিশে চাকুরিচ্যুত রুবেল নিজেদের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে আশাশুনি, দেবহাটা, সাতক্ষীরা সদর সহ বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি করছে এমন একাধিক অভিযোগ পেয়েছেন বলেও জানান চেয়ারম্যান হারুন চৌধুরী। এদিকে কুলিয়া মৎস্য ও রেণু সেডের স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, বুধবার দুপুরে নাজমুল, রুবেল ও তাদের আরেক সহযোগী মৎস্য সেডে ঢুকে ব্যবসায়ীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে মোটা টাকা চাঁদা দাবী করে।

ব্যবসায়ীরা চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা ব্যবসায়ীদের সাথে দূর্ব্যবহার ও নিজেদের সাংবাদিক আখ্যা দিয়ে আষ্ফালন করতে থাকে। বাকবিতন্ডতার একপর্যায়ে সাধারণ ব্যবসায়ীরা তাদের দুজনকে গণধোলাই দিয়ে আটকে রেখে বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটিকে খবর দেয়। পরে উত্তেজিত ব্যবসায়ীদের কাছে ক্ষমা চাওয়ার পর সেডটির ইজারা গ্রহীতা ও দেবহাটা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান শাওন ঘটনাস্থলে পৌছে ব্যবসায়ীদের শান্ত করেন এবং অবরুদ্ধ প্রতারকদের ঘটনাস্থল থেকে বের করে দেন।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com