April 12, 2024, 11:39 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
সাবেক উপদেষ্টার প্রশ্নবাণে বিব্রত বরিস

সাবেক উপদেষ্টার প্রশ্নবাণে বিব্রত বরিস

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের দীর্ঘদিনের সতীর্থ এবং ঘনিষ্ঠ সমর্থক ডমিনিক কামিংস হঠাৎ সরকারের তীব্র সমালোচনা শুরু করেছেন। কমন্স সিলেক্ট কমিটির বৈঠকে বরিসকে রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন সাবেক এই উপদেষ্টা।

রেহাই পাননি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককও। কামিংসের অভিযোগ, তিনি মিথ্যা বলেছেন সহকর্মীদের। নিজের ভূমিকা পালনে ব্যর্থ হয়েছেন। ব্রিটেনের বৃদ্ধাশ্রমে শয়ে শয়ে মৃত্যুর জন্য হ্যানককই দায়ী।

কামিংস বলেন, ‘অন্তত ১৫ থেকে ২০টি বিষয়ের জন্য হ্যানকককে বরখাস্ত করা উচিত। উনি একটা অদ্ভুত লক্ষ্য স্থির করেছিলেন। দিনে ১ লাখ করোনা পরীক্ষা। এটা কিন্তু শুধু টিভিতে ভাল দেখতে লাগে। কোনো প্রয়োজন ছিল না। শুধু এর জন্যই তার মন্ত্রিত্ব যাওয়া উচিত।’ কামিংস জানান, ফেব্রুয়ারি ও মার্চে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক করে জানিয়েছিলেন, হ্যানকককে সরানো না হলে মানুষ মরবে। ভয়ানক পরিস্থিতি হবে।

কামিংসের মতে, প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য বরিস জনসন, ‘হাজার হাজার মৃত্যু চাইলেই এড়ানো যেত। প্রধানমন্ত্রী অযোগ্য, তাই এত মৃত্যু হয়েছে।’

কামিংস বলেন, তিনি বরিস জনসনকে এমনও বলতে শুনেছেন, ‘তৃতীয় বার লকডাউনের চেয়ে মৃতদেহের স্তূপ দেখাও ভাল!’’

এক সময়ে বরিস জনসনের ডান হাত ছিলেন কামিংস। ব্রেক্সিট তার হাত ধরে নিশ্চিত হয়েছে। বরিস জনসনের প্রচারের দায়িত্বেও ছিলেন তিনি। বরিসকে ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে পৌঁছে দেওয়ার পেছনেও তিনি অন্যতম বলে অনেকের মত। কিন্তু এই কামিংসকেই গত বছর নভেম্বরে সরিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিন তিনি বরিস জনসনের নেতৃত্বের প্রশ্নে বলেন, ‘তাকে চাই না।’’

এক সময়ে যে তিনি বরিসকে চেয়েছিলেন, তার জন্য ক্ষমাও চেয়ে নেন কামিংস।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com