April 24, 2024, 2:58 am

সাংবাদিক আবশ্যক
সাতক্ষীরা প্রবাহে সংবাদ পাঠানোর ইমেইল: arahmansat@gmail.com
শিরোনাম:
খুলনায় অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার তালায় ৬০ বছর পর ৩৩ বিঘা সরকারি জমি উদ্ধার সাতক্ষীরায় বৃষ্টির আশায় ইসতিসকার নামাজ আদায় পাইকগাছায় শেখ হাসিনা প্রদত্ত খাবার পানি সংরক্ষণের জলাধার বিতরণ হঠাৎ এফডিসিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলা জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে উপকূলের বিস্তীর্ণ জনপদের মাটি ও মানুষ সাতক্ষীরায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোটরসাইকেল বহরে বোমা হামলা প্রাণ প্রাণসায়ের খালের ময়লা-আবর্জনা অপসারণ কার্যক্রম শুরু সাতক্ষীরায় সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাস্তবায়নে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশলা সাতক্ষীরায় বেসিক ট্রেড স্কীল ডেভালপমেন্ট ফোরামের মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ
ঘের থেকে মাছ চুরির দায়ে ৫ জনের সশ্রম কারাদণ্ড

ঘের থেকে মাছ চুরির দায়ে ৫ জনের সশ্রম কারাদণ্ড

সাতক্ষীরায় ঘের থেকে মাছ চুরির অভিযোগে পাঁচজনকে পাঁচ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সঙ্গে তাদেরকে দু’হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাস কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। সোমবার (২৯ মার্চ) সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচরক এস এম নুরুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, খুলনার পাইকগাছার নগর শ্রীপুর গ্রামের আবু বক্কর গাজীর ছেলে মিন্টু গাজী, একই গ্রামের আকের গাজীর ছেলে আজিজুল গাজী, শওকত সরদারের ছেলে টুকু সরদার, উত্তর শলুয়া গ্রামের মোকাম বিশ্বাসের ছেলে ফারুক বিশ্বাস ও গোদাকাটি গ্রামের পরিতোষ বিশ্বাসের ছেলে রামপদ বিশ্বাস। এদের মধ্যে টুকু সরদার পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মাছিয়াড়া গ্রামে মোস্তফা গাজীর একটি মাছের ঘের রয়েছে। গফফার গাজীসহ কয়েকজন ওই ঘেরের পাহারাদারের দায়িত্ব পালন করতেন। ২০১০ সালের ২৭ মে দিবাগত রাত ২টায় মাছ চুরি করে পালানোর সময় আব্দুল গফফার গাজী মোবাইল ফোনে বিষয়টি পার্শ্ববর্তী রায়পুর গ্রামের প্রকাশ ডাক্তারকে জানান।

এসময় প্রকাশ ডাক্তারের ডাক-চিৎকারে চোরচক্রের সদস্যরা ঘেরের পানিতে ঝাপ দিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন। পরে মিন্টু গাজী, আজিজুল গাজী, ফারুক বিশ্বাস, রামপদ বিশ্বাস ও আবুল কালাম বিশ্বাসকে আটক করে গণধোলাই দেয় এলাকাবাসী। গণপিটুনিতে মারা যান আবুল কালাম বিশ্বাস। তবে টুকু সরদার ও জামারুল গাজীসহ তিনজন পালিয়ে যান।

মাছ চুরির ঘটনায় ২০১০ সালের ২৮ মে ঘেরের পাহারাদার আব্দুল গফফার বাদী হয়ে গ্রেফতার চারজনসহ টুকু সরদার ও জামারুল গাজীর নাম উল্লেখ করে তালা থানায় মামলা করেন। তালা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) লুৎফর রহমান ওই বছরের ২৮ আগস্ট এজাহারভুক্ত ছয়জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মামলার ছয়জন সাক্ষীর জবানবন্দি ও নথি পর্যালোচনা শেষে জামারুল গাজীকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়। অপর পাঁচ আসামিকে পাঁচ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড, দু’হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে প্রত্যেককে আরো তিন মাস করে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।


Comments are closed.

ইমেইল: arahmansat@gmail.com
Design & Developed BY CodesHost Limited
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com